সুনামগঞ্জে কিশোরীকে ‘ধর্ষণ’, হোটেল ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ৬:১২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৯

সুনামগঞ্জে কিশোরীকে ‘ধর্ষণ’, হোটেল ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে হওয়া মামলায় আসান উল্লাহ (২৫) নামের এক হোটেল ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) রাতে উপজেলার গজারিয়া বাজার থেকে আসান উল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে গ্রেপ্তারকৃত ঐ হোটেল ব্যবসায়ীকে আসামি করে সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন পল্লী চিকিৎসক হেলাল উদ্দিন। ‘ধর্ষণ’ এর শিকার ঐ কিশোরী চিকিৎসক হেলাল উদ্দিনের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করেন।

এই ঘটনার পর ওই কিশোরীকে পুলিশ উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সুনামগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। গ্রেপ্তার আসান তায়েব নগর গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে। আসান দীর্ঘদিন ধরে পাশের গজারিয়া বাজারের তার নিজের একটি ঘরে হোটেলের ব্যবসা চালিয়ে আসছিল।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে ওই কিশোরী বাজারের হোটেল ব্যবসায়ী আসান উল্লাহ’র দোকানের পেছনের একটি সরকারি টিউবয়েল থেকে পানি আনতে যায়। এ সময় হোটেল আসান মেয়েটিকে একা পেয়ে জোর করে ধর্ষণ করে। এই ঘটনা হেলাল উদ্দিনকে জানায় ওই কিশোরী। তিনি বিষয়টি বাজারের ব্যবসায়ীসহ স্থানীদের জানান। পরে শুক্রবার রাতে তিনি বাদী হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে আসান উল্লাহকে আসামি করে জামালগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মামলার পরপরই ধর্ষণের শিকার ওই মেয়েটিকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সুনামগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি আসান উল্লাহকে ওই রাতেই গ্রেপ্তার করে শনিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

সিলেটপ্রেসডটকম /২৮ ডিসেম্বর ২০১৯/এফ কে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Send this to a friend