ফেঞ্চুগঞ্জে প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে, ফেঞ্চুগঞ্জ মুক্ত দিবসে মুক্তিযোদ্ধের গল্প বলা,গল্প শোনা

প্রকাশিত: ১০:৩০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

ফেঞ্চুগঞ্জে প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে, ফেঞ্চুগঞ্জ মুক্ত দিবসে মুক্তিযোদ্ধের গল্প বলা,গল্প শোনা

জুলহান চৌধুরী,ফেঞ্চুগঞ্জ ::মুক্তিযুদ্ধের সেই ভয়াল দিনের গল্প শোনালেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও কমিউনিটি নেতা ফেঞ্চুগঞ্জের বদরূল ইসলাম নিলু। তিনি বলেছেন যুদ্ধের সময় আমরা স্বাধীনতার জন্য নিজের জীবন বাজী রেখে যুদ্ধ করেছি।তখন এখনকার মতো নেতারা আদর্শহীন ছিলেন না তাই আমরা স্বাধীনতার ডাকে সাড়া দিয়ে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হয়। যে লক্ষ নিয়ে আমরা দেশ স্বাধিন করেছিলাম তা আজো পুরন হয়নি। অপূর্ণই থেকে গেলো সেই সময়ের স্বাধীনতা কামি মানুষের স্বপ্ন। বঙ্গবন্ধুর জীবন দশায় বাকশাল যেভাবে কাজ করেছিল, বাকশাল কর্মসূচি কার্যকর হলে এই বাংলাদেশ সত্যিকারের বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হয়ে যেত। তিনি আরো বলেন, ১৯৭১ সালের ১১ই ডিসেম্বর ফেঞ্চুগঞ্জ পাক হানাদার মুক্ত হয়েছিল।তিনি শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে। যুদ্ধ পরিচালনা সর্বাধিনায়ক জেনারেল আতাউল গনি ওসমানী, সিলেটের তৎকালীন ক্লিন ইমেজের নেতা মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ডাক্তার দেওয়ান নুরূল হোসেন চঞ্চল, দেওয়ান ফরিদ গাজি, সেক্টর কমান্ডার সি আর দও সহ সকল সংগঠকে তিনি শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন। ফেঞ্চুগঞ্জের স্বাধীনতার জন্য কাজ করেছিলেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক প্রয়াত আব্দুল লতিফ, আরফান আলী, ডা. মিনহাজ উদ্দিন, আফাজুল ইসলাম ফিরু সহ সকল সংগঠকদের প্রতি তিনি শ্রদ্ধা জানান।
বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে ফেঞ্চুগঞ্জ প্রেস ক্লাবে যুদ্ধদিনের কথা শীর্ষক আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে তিনি এ কথাগুলো বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন ফেঞ্চুগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক লেখক ও গীতিকার রিয়াজ উদ্দীন ইসকা।
প্রেস ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক মামুনুর রশীদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন- সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও মুক্তিযোদ্ধা ফয়জুল ইসলাম মানিক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাছিত টুটুল, সাংবাদিক শাহ মুুুুজিব রহমান জকন সাংবদিক তাজুুল ইসলাম বাবুল মুক্তিযোদ্ধা বাচ্চু মিয়া ।
উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা আজমল হোসেন রইফ, মোস্তাক আহমদ, পাখি মিয়া সাজিদ আলী,সাংবাদিক শহীদ আহমদ জুলহান চৌধুরী , কবি মফজ্জিল আলী, সমাজকর্মী কামাল আহমদ, এনায়েত হোসেন রুহেল, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সভাপতি আব্দুল হাই নন্না, সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমদ জুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ আলী বাচ্চু রূমেল আলী সহ বিভিন্ন সামাজি, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সিলেটপ্রেসডটকম /১১ ডিসেম্বর ২০১৯/এফ কে 

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Send this to a friend