আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও সোনারপাড়ায় জমি দখলের চেষ্টা

প্রকাশিত: ১০:০১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০১৯

আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও সোনারপাড়ায় জমি দখলের চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার :: সিলেট নগরীর শিবগঞ্জ এলাকার পশ্চিম সোনারপাড়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও আবারো জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা করতে গিয়ে স্থানীয়দের রোশানলে পড়ে পালিয়েছেন একই এলাকার নবারুন-২২৭ এর বাসিন্দা মৃত আজিজুর রহমানের ছেলে আকিকুর রহমান বাদশা ও তার সহযোগীরা।

এর আগে গত ২২ নভেম্বর বাদশা নিজের জমির সীমানাপ্রাচীর তৈরী করতে গিয়ে ওই জমি নিজের দাবী করে মাটি ভরাট করার চেষ্টা করেন। ওইদিন এসএমপির শাহপরাণ (রহ.) থানায় এমন অভিযোগ করেছিলেন পশ্চিম সোনারপাড়ার এলাকার নবারুন-১৪২ নাম্বার বাসার বাসিন্দা মৃত আলা উদ্দিনের ছেলে মো. শিহাব উদ্দিন খসরু। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মাটি ভরাটের কাজ বন্ধ করে দেয়। এই জমি নিয়ে গত ২৮ নভেম্বর সোনারপাড়া নবারুন-১৪১ নাম্বার বাসার বাসিন্দা মৃত আসক আলী কামালীর ছেলে মো. সালেহ উদ্দিন উল্লা সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালত একটি স্বত্ব মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ১৫দিনের মধ্যে বিবাদী আকিকুর রহমান বাদশা গংকে কারণ দর্শানোর জন্য বলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল ১১টার সময় ৯/১০ জন অজ্ঞাত লোক নিয়ে আকিকুর রহমান বাদশা গং মো. শিহাব উদ্দিন খসরু গংয়ের জমি জোরপূর্বক দখলের জন্য মাটি ভরাটের চেষ্টা করেন। এসময় তার ভাগ্না সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক ও সাবেক সিনিয়র সদস্য জাকারিয়া মাহমুদ ও স্থানীয়দের রোশানলে পড়ে পালিয়ে যান বাদশা। বন্ধ হয় মাটি ভরাট কাজ। বিষয়টি এসএমপির শাহপরাণ (রহ.) থানাকে অবগত করা হয়েছে।

পরে পুলিশ এসে আবারো জমিতে মাটি ভরাটের কাজ বন্ধ করে দেয় মো. শিহাব উদ্দিন খসরু বলেন, আদালতের আদেশ অমান্য করে গতদিনের মতো আকিকুর রহমান বাদশা (৬০) আমার দাদা জামাল উদ্দিনের নামীয় এসএ রেকর্ডিয় বাড়ির পিছনের (ডোবা) জোরপূর্বক দখলের জন্য মাটি ভরাটের চেষ্টা করেছেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ মাটি ভরাটের কাজ বন্ধ করেছে।

আকিকুর রহমান বাদশার ভাগ্না সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক ও সাবেক সিনিয়র সদস্য জাকারিয়া মাহমুদ বলেন, এই জমিতে আমার মায়ের ৯ শতক ভূমি রয়েছে। মামা (আকিকুর রহমান বাদশা) আমার নাম ব্যবহার করে জমি ভরাট করার চেষ্টা করছেন। তাই আমিসহ স্থানীয়রা তাদের এই কাজে বাঁধা দেই। এসময় স্থানীয়দের রোশানলে পড়ে তিনি ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। বিষয়টি জানতে এসএমপির শাহপরাণ (রহ.) থানার ওসি মো. আব্দুল কাইয়ুমকে কল করলে তিনি কল রিসিভ করেননি।

আরো পড়ুন : দক্ষিণ সুরমার মৌরসী সম্পত্তি টিকিয়ে রাখতে গিয়ে মা-সহ কারাবরণ

সিলেটপ্রেসডটকম /০৩ ডিসেম্বর ২০১৯/ এফ কে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Send this to a friend