মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা রোটারি সিলেট সাউথের

 
 

14.12.17সত্যিকার দেশপ্রেমের মাধ্যমেই দেশের উন্নতি সাধন করা সম্ভব। দেশপ্রেমহীন জাতি সাফল্য অর্জন করতে পারে না। আমাদের মুক্তিযোদ্ধারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। তাদের অসামান্য অবদানের ফলেই স্বাধীনভাবে নিজেদেরকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছি। মুক্তিযোদ্ধাদেরকে সম্মান জানানোর মাধ্যমে দেশের সম্মানকে উঁচু করে তুলা হয়।

রোটারি ক্লাব অব সিলেট সাউথ আয়োজিত মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন।
রোটারি ক্লাব অব সিলেট সাউথের প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান ক্ষমাকান্ত চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে গত বৃহস্পতিবার জেলরোডস্থ একটি অভিজাত হোটেলের কনফারেন্স হলে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ক্লাব সেক্রেটারি রোটারিয়ান আলী আকবর রাসেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা অহিন্দ্র কুমার চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. সাইফুল আলম এবং সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন পিডিজি ইঞ্জিনিয়ার এম এ লতিফ, এসিস্ট্যান্ট গভর্নর প্রফেসর ড. তোফায়েল আহমদ, প্রফেসর জয়ন্ত দাশ, সিলেট সুরমা জোনের জোনাল কো-অর্ডিনেটর রোটারিয়ান জাকির আহমদ চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পিপি রোটারিয়ান ড. আর কে ধর, পিপি রোটারিয়ান এডভোকেট ড. দীলিপ কুমার দাশ, রোটারি ক্লাব অব সিলেট সুরমা-এর প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান আব্দুল কাইয়ুম, মুক্তিযোদ্ধা মুক্তাদির আলী চৌধুরী, রোটারিয়ান পিপি মতিউর রহমান, প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট ও সংবর্ধনা আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান রোটারিয়ান জুবায়ের আহমদ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উৃপস্থিত ছিলেন এডভোকেট পিপি রোটারিয়ান দীপক রঞ্জন দত্ত, আইপিপি রোটারিয়ান জামাল উদ্দিন আহমদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান আবদুল মুহিত দিদার, রোটারিয়ান আতিকুর রহমান চৌধুরী, রোটারিয়ান আশরাফুল হক, রোটারিয়ান দিদার ইবনে তাহের লশকর, রোটারিয়ান শামীম আহমদসহ বিভিন্ন ক্লাবের সদস্যবৃন্দ। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয় এবং রোটারী প্রত্যয় পাঠ করেন রোটারিয়ান রাজীব আহসান। উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথিদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন অতিথিবৃন্দ এবং অনুষ্ঠানের শুরুতে তাদেরকে ফুল দিয়ে বরণ করেন ক্লাব সদস্যবৃন্দ।

সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা অহিন্দ্র কুমার চৌধুরী বলেন, দেশের প্রতি অগাধ ভালোবাসার কারণে জীবন বাজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছি। আজকের এই সংবর্ধনা আমাদের চাওয়া পাওয়াকে বাড়িয়ে দিয়েছে। আবেগ তাড়িত করেছে। সত্যিকার সোনার বাংলা গড়ে তুলতে আমাদেরকে কাজ করতে হবে।
বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. সাইফুল আলম বলেন, আমাদের একটাই প্রচেষ্টা ছিল দেশকে স্বাধীন করবো। সেই কারণে শত্রুরা আমাদের স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে নিতে পারেনি। দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য স্ব স্ব অবস্থান থেকে কাজ করলেই আমাদের আতœত্যাগ সার্থক হবে বলে মনে করি। বিজ্ঞপ্তি