বিজয় দিবসে জেলা পরিষদের আলোচনাসভা

 
 

PIC (1)মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে সিলেট জেলা পরিষদের উদ্যোগে শনিবার জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান। মুখ্য আলোচকের বক্তব্য রাখেন ডা. মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, জেলা বারের সাবেক সভাপতি আব্দুল খালিক, দৈনিক শুভ প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রকাশক ও কানাডা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সারওয়ার হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিজয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্যানেল চেয়ারম্যান শামীম আহমদ।
জেলা পরিষদের সদস্য অ্যাড. মুজিবুর রহমান ও বাংলাদেশ জেলা পরিষদ মেম্বার অ্যাসোসিয়েশন সিলেট বিভাগের সভাপতি ও সিলেট জেলা পরিষদের সদস্য মতিউর রহমানের যৌথ পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের সদস্য প্যানেল চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন ও আমাতুজ জহুরা রওশন জেবিন রুবা, জেলা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ শাহ নুর, মতিউর রহমান, নুরুল ইসলাম ইছন মিয়া, মুহিবুর রহমান, স্যায়িদ আহমদ সুহেদ, আশিকুর রহমান, লোকন মিয়া, জয়নাল আবেদীন, শামিম আহমদ, আলমাছ উদ্দিন, মুজিবুর রহমান, শাহ ফরান মিয়া, সহল আল রাজী, নজরুল হোসেন, ইমাম উদ্দিন, মহিলা সদস্য সুষমা সুলতানা রুহি, হাসিনা বেগম, সাজনা সুলতানা হক চৌধুরী প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান বলেন, আজ মহান বিজয় দিবস। একাত্তরের এই দিনে দখলদার পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে নয় মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয়েছিল। যে অগণিত শহীদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে এই বিজয় সম্ভব হয়েছিল, আমরা তাঁদের গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি। একই সঙ্গে স্মরণ করছি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী নেতাদের।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশ স্বাধীন করেছিলেন, পাকিস্তানির হাত থেকে দেশকে মুক্ত করেছিলেন, আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে রাজাকারের কলংক থেকে মুক্ত করেছেন। এ কথা সত্য যে গেল ৪৬ বছরে অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অনেক অর্জন আছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, যোগাযোগ, শিল্প, কৃষি, তথ্যপ্রযুক্তিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের সাফল্য আছে। মানবসম্পদ উন্নয়ন সূচকেও আমাদের অগ্রগতি অনেক উন্নয়নশীল দেশের চেয়ে বেশি। বিজ্ঞপ্তি