বিএমএ মহাসচিব ও সহসভাপতিকে পার্কভিউ মেডিকেল কলেজের সংবর্ধনা

 
 

00বিএমএ-এর মহাসচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো. ইহতেশামূল হক চৌধুরী ও বিএমএ-এর কেন্দ্রীয় সহসভাপতি এবং সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোর্শেদ আহমদ চৌধুরীর সম্মানে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান করেছে পার্কভিউ মেডিকেল কলেজ।

গত রোববার সকালে নগরীর তালতলাস্থ পার্কভিউ মেডিকেল কলেজের কনফারেন্স হলে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

পার্কভিউ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক অছুল আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএমএ-এর মহাসচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো. ইহতেশামূল হক চৌধুরী। সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, চিকিৎসা পেশা একটি মহৎ পেশা। এই পেশায় থেকে মানুষের সেবা করার সুযোগ সৃষ্টি হয়। তাই শিক্ষার্থীদের এখন থেকেই মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিয়ে লেখাপড়ায় মনোযোগী হতে হবে। চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিতে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বাস্থ্য সেবায় আমাদের আরো প্রসংশনীয় ভূমিকা পালন করা প্রয়োজন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পার্কভিউ হেলথকেয়ার পাইভেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান ডা. মো. আব্দুল হাই, পার্কভিউ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক এম.এ. আহবাব, ডার্মাটোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও বিএমএ-এর সিলেটের সভাপতি অধ্যাপক ডা. রুকন উদ্দিন আহমদ, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. এ.টি.এম. এ জলিল, পার্কভিউ মেডিকেল কলেজের শিশু বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ডা. বদরুল হক রুকন, অপথালমোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. জামিল আহমেদ, বায়োকেমিষ্ট্রি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. বিধান চন্দ্র দেবনাথ, অটোরাইনোলেরিংগোলজি বিভাগের অধ্যাপক (চ.দা) ডা. মো. মোজাম্মেল হোসেন, ডা. মো. ফয়েজ উদ্দিন, শিশু সার্জারি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. মো. হোসেন রবিন, মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রভাষক ডা. মুনতাহা চৌধুরী, বিদেশি ছাত্রী সেবিকা শ্রেষ্টা, ছাত্রী রেদওয়ানা তাবাসসুম বন্নি, ছাত্র ইকবাল আহমদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ও কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. ছফির উদ্দিন আহমদ।

শিশু বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. পিয়া বিশ্বাসের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন ডা. শাহবুদ্দীন আহমদ, ডা. প্রভাত রঞ্জন দে, অধ্যাপক ডা. দিলীপ কুমার ভৌমিক। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল মালিক, অধ্যাপক ডা. অঞ্জন কুমার দেব, অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুস, অধ্যাপক ডা. মো. ছমির উদ্দিন, অধ্যাপক ডা. লুৎফে এলাহী ফারুকী, ডা. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন, ডা. চৌধুরী রিফাত জাহান, ডা. মাধবী রাণী দেব, ডা. আহমদ মকসুদ হাসান লস্কর, ডা. মো. আব্দুল লতিফ, ডা. শামীমা আক্তার, ডা. মিসবাউল হক চৌধুরী, ডা. দীপেন্দ্র নারায়ন দাস, ডা. মোহাম্মদ সাকির আহমেদ, ডা. সুলতানা মেহনাজ রহমান চৌধুরী, ডা. মুকুল রঞ্জন ঘোষ, ডা. মো. জাকির হোসেন, ডা. অনুপ দেবনাথ, ডা. স্মিতা দাস, ডা. সৈয়দা সানিয়া সুলতানা, ডা. রহিমা বেগম, ডা. রাজিয়া সুলতানা বিথী, ডা. সৈয়দ আদনান বোরহান উদ্দিন, ডা. শাহ ফেরদৌস চৌধুরী, ডা. তিন্নী রানী পাল, ডা. ফারাহ দিবা চৌধুরী, ডা. মো. মঞ্জুরুল হাবিব চৌধুরী, ডা. ফৌজিয়া ইয়াসমিন, ডা. তাজরীন আলম, ডা. ফখরুল আলম খান, ডা. তাফহিম আহমেদ রিফাত, ডা. দীপ্যমান দে, ডা. ফারহাত বাশার, ডা. অলিউর রহমান চৌধুরী, ডা. প্রজ্ঞা লাবণী টিনা, ডা. সারা মাহজাবীন হোসেন, ডা. শায়লা শারমিন, ডা. সাদিয়া সারা দ্যুতি, ডা. ফারিহা জেসমিন চৌধুরী, ডা. মুনতাহা চৌধুরী, ডা. জালাল আহমদ মাসুদ, ডা. নুরুন্ননাহার, ডা. রুবাইয়া নাসরীন লোপা, ডা. নাদিয়া নুসরাত চৌধুরী, ডা. তমালিকা ভট্রাচার্য, ডা. আহমেদ জাহীন সাহিব, ডা. শারমীন আক্তার লিমা, ডা. নাবিলা হক দারিন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জহিরুল ইসলাম জুয়েল ও গীতা থেকে পাঠ করেন দুর্জয় রায়। উল্লেখ্য, জরুরি সরকারি কাজে ঢাকায় অবস্থান করায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেন নি বিএমএ-এর কেন্দ্রীয় সহসভাপতি এবং সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোর্শেদ আহমদ চৌধুরী।