নন্দিত বলিউড অভিনেত্রী গীতার আশ্রয় এখন বৃদ্ধাশ্রম!

 
 

bolywood pic

সিলেটপ্রেস ডেস্ক: বলিউডের বিখ্যাত ছবি পাকিজা। সেই ছবিতে অভিনয় করে নজর কেড়েছিলেন একসময়ের নন্দিত অভিনেত্রী গীতা কাপুর। তবে ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে গীতা কাপুরের(৫৮) ঠিকানা হয়েছে এখন একটি বৃদ্ধাশ্রমে।

কিছুদিন আগে অসুস্থতাজনিত কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন গীতা। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে তার ছেলে রাজা কাপুর মাকে হাসপাতালে ফেলে পালিয়ে গিয়েছিলেন। এমনকি চিকিৎসার বিলও মেটাননি। ফলে হাসপাতালই ঠিকানা হয়ে দাঁড়ায় একসময়ের নামী কোরিওগ্রাফার গীতা দেবীর। খবর সামনে আসতেই তাঁর দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন প্রযোজক অশোক পণ্ডিত ও রমেশ তুরানি। তাঁরা হাসপাতালের বকেয়া বিল মিটিয়ে জীবন আশা নামের এক বৃদ্ধাশ্রমে থাকার ব্যবস্থা করে দেন। আপাতত সেখানেই থাকবেন এই অভিনেত্রী।

অশোকবাবু টুইটারে জানিয়েছেন, গীতা কাপুরকে অন্ধেরির ‘জীবন আশা’ বৃদ্ধাশ্রমে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তিনি কয়েকদিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে যাবেন। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, বৃদ্ধাশ্রমকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

খবরে বলা হয়, ছেলে রাজা গীতাকে হাসপাতালে ভর্তি করানোর পর এটিএম থেকে টাকা তোলার নাম করে গিয়ে আর ফেরেননি। চিকিৎসাবাবদ খরচ হয় প্রায় দেড় লাখ রুপি দাঁড়ায়। সেই অর্থও মেটাতে পারেননি গীতাদেবী। এই ঘটনা সংবাদে প্রকাশিত হয়। তারপরই গীতাদেবীর দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন অশোক।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, অর্থ নিয়ে আসার নাম করে হাসপাতাল থেকে উধাও হয়ে যান গীতাদেবীর ছেলে। মিডিয়ার মাধ্যমে খবর জানাজানি হওয়ার পরও গীতাদেবীর পরিবার থেকে কেউ খবর নিতে আসেননি।