দক্ষিণ সুরমার লামাপাড়ায় ঈদে মিল্লাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও আলোচনাসভা

 
 

TALAMIJ PIC. 02বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সোবহানীঘাট হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ হযরত মাওলানা কমরুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেছেন, রাসূল (সা.) কে যারা খাটো করতে চায়, তারা ইসলাম ও মুসলমানদের দুশমন। যুগে যুগে যে সকল দুশমনে রাসূলদের আভির্ভাব হয়েছিলো; তারা মৃত্যুকালে কোন না কোনভাবে লাঞ্চিত হতে হয়েছে। পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী (সা.) পালন করা কুরআন-সুন্নাহ-ইজমা-কিয়াস দ্বারা স্বীকৃত। সকল হক্কানী উলামায়ে কেরামগণ তা পালন করেও এসেছেন। কিন্তু বর্তমানে কিছুসংখ্যক লোক আল্লাহর রাসূলের মিলাদকে খাটো করে ইসলামের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। এসব বিপথগামীদের ব্যাপারে ঈমানদার মুসলমানদের সজাগ থাকতে হবে।

তিনি শনিবার ২ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় দক্ষিণ সুরমার বৃহওর লামাপাড়া মিলাদুন্নবী (সাঃ) বাস্তবায়ন কমিটির উদ্যেগে পবিএ ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভায়া প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে উপরোক্ত কথা গুলু বলেন।
লামাপাড়া গাবরু মিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে দুপুর ২টায় এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি তেতলী,কামাল বাজার ও মোল্লার গাও ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে লামাপাড়া জামে মসজিদে গিয়ে শেষ হয়। সকাল থেকেই নবীপ্রেমিক মুসলিম জনতা, ছাত্র-শিক্ষক, আলেম-উলামা হাতে হাতে প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন। তাতে খচিত রাসূলের প্রশংসায় লিখিত কালজয়ী কবিতার পংক্তি। মাথায় সবুজ পাগড়ি। এগিয়ে চলছে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)-এর র‌্যালি। মাইকে বাজছে শিল্পীদের দরদমাখা কণ্ঠে নাত। ‘তালায়াল বাদরু আলাইনা, মিনছানি ইয়াতিল বিদায়ি’, ‘সকল ঈদের সেরা ঈদ, ঈদে মিলাদুন্নবী’ ‘মারহাবা মারহাবা বলে উঠলো পৃথিবী, ঈদে মিলাদুন্নবী আজ মিলাদুন্নবী’। মুখে মুখে উচ্চারিত এসব গজলের সুরে মুখরিত তেতলী,কামাল বাজার ও মোল্লার গাও ইউনিয়নের অলি-গলি, রাজপথ।যোগ দিতে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে জড়ো হতে থাকেন ।

বৃহওর লামাপাড়া ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি আব্দুল মছব্বিরের সভাপতিত্বে ও সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জুয়েল আহমদের পরিচালনায় এবং বৃহওর লামাপাড়া ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিনের শুভেচ্ছা বক্তব্যর সুচিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা মুফতি এ কে এম মনোওর আলী। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আনজুুুুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সহ সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন রহমান লেখন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মাওলানা মরতুজ আলী (আমানত পুরী),মোল্লার গাও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামীগের এাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, সিলেট মহানগর তালামীযের সহ সভাপতি শেখ শফি উদ্দিন,মাহবুর রহমান ফরহাদ,দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের সভাপতি মুহাম্মদ আলাউদ্দিন পাশা,দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আল ইসলাহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জয়নাল আবেদীন,আল মদিনা দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা নজরুল ইসলাম,দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের সহ সভাপতি হাফিজ শিহাব উদ্দিন,সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক সাজু, সাংবাদিক ইসলাম উদ্দিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সমাজ সেবক মকবুল হোসেন মামুন,আল ইসলাহ নেতা মাওলানা আহমদ আলী,শফিউল আলম শুকুর,দক্ষিণ সুরমা থানা তালামীযের শিক্ষা ও সংস্কৃতিক সম্পাদক সাইফুর রহমান,সদস্য আলমগির হোসাইন,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলী আহমদ, কামালবাজার আঞ্চলিক তালামীযের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ মাহবুর রহমান, তেতলী চেরাগী-বড় বেটুয়ারমুখ আঞ্চলিক তালামীযের সভাপতি লিটন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক রায়েল আহমদ,সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি