দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলতে চান পিটারসেন

 
 

32356

স্পোর্টস ডেস্ক :: ২০১৪ সালে অ্যাশেজ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড নির্বাসন দিয়েছে কেভিন পিটারসেনকে। এর পর থেকে বিভিন্ন দেশে তিনি খেলছেন টি-টোয়েন্টির ‘ফেরিওয়ালা’ হয়ে। তবে বুধবার প্রায় দুই বছর পর ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেললেন তিনি। টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে সারের হয়ে খেলেছেন দারুণ এক ইনিংস। এসেক্সের বিপক্ষে ১০ রানের জয়ে ৩৫ বলে ৫২ রান করেন পিটারসেন। বয়স ৩৭ হলেও নজরকাড়া এমন পারফরম্যান্স ধরে রেখে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার অপেক্ষায় দিন গুনছেন তিনি।

তবে ইংল্যান্ডে ফেরার আশা ছেড়ে দিয়েছেন পিটারসেন। জন্মভূমি দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সি এবার পরতে চান, ফিরতে চান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। ওভালে বিধ্বংসী পারফরম্যান্সের পর ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক বলেছেন, ‘আপনারা দুই বছর পরের কথা বলছেন। আমি কি খেলব? কে জানে? আমাদের অপেক্ষা করতে হবে, দেখা যাক কোথায় থাকি আমি।’

পিটারমারিজবুর্গে জন্ম নেওয়া পিটারসেনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার শেষ আশ্রয়স্থল দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০১৯ সালে দেশটির হয়ে ক্রিকেট খেলার যোগ্যতা লাভ করবেন তিনি। ততদিনে বয়স ৪০ ছুঁইছুঁই হলেও আত্মবিশ্বাসের কমতি নেই তার, ‘পরের দুই বছর আমি দক্ষিণ আফ্রিকায় অনেক বেশি ক্রিকেট খেলব। আমি ব্যাটিং করতে ভালোবাসি। যতদিন পর্যন্ত ভালোবাসা আছে ততদিন ব্যাটিং করব। কে জানে দুই বছর পর আমি কোথায় থাকব? সময় বলে দেবে কী করব। তবে আমি নিজেকে নিয়ে খুশি।’