তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ হবে: আধিপত্য থাকবে রাশিয়ার

 
 

6564

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ হবে। তাতে বর্তমানের চেয়ে আরো শক্তিশালী হয়ে আবির্ভূত হবে রাশিয়া। ভ্লাদিমির ও রাশিয়ার গর্বের কাছে সব কিছু বরফের মতো গলে যাবে।

বর্তমান বিশ্ব পরিস্থিতি ও তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিষয়ে পূর্বাভাসে এসব কথা বলেছেন বাবা ভাঙ্গা। তিনি বুলগেরিয়ার একজন ভবিষ্যতবক্তা। তার পুরো নাম গ্রান্ডমাদার ভাঙ্গা।

জন্ম ১৯১১ সালের ৩১ শে জানুয়ারি। মারা গেছেন ১৯৯৬ সালের ১১ই আগস্ট। মারা যাওয়ার আগে অন্ধ বাবা ভাঙ্গা পূর্বাভাসে এসব কথা বলে গেছেন। অনেকেই বলেন তিনি বৈশ্বিক ঘটনাপ্রবাহের ওপর যেসব পূর্বাভাষ দিয়েছেন তার বেশির ভাগই সঠিক হয়েছে।

তিনি বলেছিলেন ২০০১ সালে ৯ই সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী হামলা হবে। তা সত্য হয়েছে। সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইসিসের যখন উত্থানও ঘটেনি তখনই তিনি তাদের বিষয়ে পূর্বাভাস দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, এক সময় আইসিস নামের একটি জঙ্গিগোষ্ঠীর উত্থান ঘটবে। ঘটেছেও তাই।

কিন্তু এখন মানুষ আতঙ্কে আছে তার আরও একটি পূর্বাভাস নিয়ে।  তা হলো তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ হবে। সেই যুদ্ধেরে এলার্ম বেল বাজাবে রাশিয়া। বাবা ভাঙ্গা বুলগেরিয়াতে ‘বলকান নস্ট্রাডামাস’ নামেও পরিচিত। তিনি বলেছেন, তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে থাকবে রাশিয়া। অন্যরা নামমাত্র টিকে থাকববে। ৮৫ বছর বয়সে ১৯৯৬ সালে মারা যাওয়ার আগে তিনি এসব বলে গেছেন। তিনি ওই পূর্বাভাসে আরো বলেছেন, তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে রাশিয়া শুধু টিকেই থাকবে না। একই সঙ্গে বিশ্বে প্রাধান্য বিস্তার করবে।

ওদিকে বর্তমানে বিশ্ব রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে বিরাজ করছে এক টান টান উত্তেজনা। সিরিয়াকে কেন্দ্র করে সেই উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করেছে। যুক্তরাষ্ট্র, বৃটেন ও ফ্রান্স সম্মিলিতভাবে সিরিয়ায় হামলা চালিয়েছে। এর বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেছেন, সিরিয়ায় আর একবার হামলা চালানো হলে তার পরিণতি হবে ভয়াবহ। পুতিনের এমন হুঁশিয়ারি ভাবিয়ে তুলেছে সবাইকে। তিনি কি তবে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের ট্রিগারে হাত রেখে বসে আছেন। সম্প্রতি ক্রেমলিন মালিকানাধীন টিভি চ্যানেল তার দর্শকদের সতর্ক করেছে। তাদেরকে খাদ্যদ্রব্য মজুত করে রাখার তাগিদ দিয়েছে। কারণ, বিশ্বযুদ্ধ আসন্ন। টেলিভিশন থেকে যখন এমন হুঁশিয়ারি দেয়া হচ্ছে তখন বাবা ভাঙ্গার পূর্বাভাসকেও সামনে নিয়ে আসা হয়েছে। ফলে রাশিয়া সহ অনেক দেশই আশঙ্কা করছেন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে যেকোনো সময়।