জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন দখলে নিয়েছে সেনাবাহিনী

 
 

45454221

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জিম্বাবুয়ে ব্রডকাস্টিং করপোরেশন (জেডবিসি) দখলে নিয়েছেন দেশটির সেনাবাহিনী।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ‘সন্ত্রাসীদের লক্ষ্য করে’ জেডবিসি দখলে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে জিম্বাবুয়ের সেনাবাহিনী।

প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের নেতৃত্বাধীন জেডএএনইউ-পিএফ সেনাপ্রধানের বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার অভিযোগ আনার পর বুধবার অভ্যুত্থানের এই পূর্বাভাস দিল সেনারা।

দেশের জাতীয় সম্প্রচারমাধ্যম জেডবিসি দখলে নেয়ার পর জিম্বাবুয়ের সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, যারা অপরাধ করছেন এবং এর ফলে দেশের সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষতি হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় সেনাবাহিনী। তবে টেলিভিশন দখলের মানে ‘সামরিক বাহিনীর ক্ষমতা দখল নয়’।

বিবৃতিতে বলা হয়, যত দ্রুত আমরা আমাদের মিশন সফল করতে পারব তত তাড়াতাড়ি দেশের পরিস্থিতি আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যাবে।

৯৩ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট মুগাবে এবং তার পরিবার নিরাপদ রয়েছে এবং তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, জেডএএনইউ-পিএফ পার্টিতে মিত্রদের আকস্মিক অপসারণের বিষয়ে মঙ্গলবার হস্তক্ষেপের হুমকি দেন সেনাপ্রধান জেনারেল কনস্টান্টিনো চিওয়েঙ্গা। এর ২৪ ঘণ্টা পরই রাজধানীর প্রধান সড়কগুলোতে সেনাদের সাঁজোয়া যান চলতে দেখা যায়।

এ ঘটনায় যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র দপ্তর তাদের নাগরিকদের রাজধানী হারারের পরিস্থিতি স্পষ্ট না হওয়া পর্যন্ত নিজেদের বাড়ি বা বাসস্থানে নিরাপদে থাকার জন্য পরামর্শ দিয়েছে।

অন্যদিকে, হারারের মার্কিন দূতাবাস এক টুইটবার্তায় জানিয়েছে, চলমান অনিশ্চয়তার কারণে বুধবার তারা তাদের কার্যক্রম বন্ধ রাখবে। পরবর্তী নোটিশ না পাওয়া পর্যন্ত নিজেদের নাগরিকদের বাড়িতেই অবস্থানের পরামর্শ দিয়েছে তারা।