গৃহবধূকে ‘ইংরেজি তাবিজ’ দিয়ে ধর্ষণ করলো কবিরাজ

 
 
23232

প্রতীকী ছবি

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলায় ‘ইংরেজি তাবিজ’ দিয়ে জিন তাড়ানোর নামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক কবিরাজের বিরুদ্ধে। সোমবার সন্ধ্যায় কবিরাজ আজিজুল ইসলামের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে পলাতক ওই কবিরাজ।

আজিজুল ইসলাম ওই এলাকার জসিম উদ্দিন সরকারের ছেলে। এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে মহাদেবপুর থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই গৃহবধূকে জিনে ধরেছে। শরীরে জিনের উপস্থিতি দেখা দিলে মাঝেমধ্যে সমস্যা করতো। গত ১৬ এপ্রিল (সোমবার) ওই গৃহবধূ তার স্বামীকে নিয়ে মহাদেবপুরে ওই কবিরাজের বাড়িতে আসে। পরে গৃহবধূকে ঝাঁড়ফুক ও ইংরেজি তাবিজ দেয়া হয়।

কিন্তু এতে কোনো উপকার হয়নি ওই গৃহবধূর। সোমবার সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূ তার স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে আবারও কবিরাজের বাড়িতে আসে।

এরপর কবিরাজ ওই গৃহবধূকে তার বাড়ির দোতলায় নিয়ে খাটে শুইয়ে দেয়। সেইসঙ্গে স্বামী ও ভাসুরকে বের করে দিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়। শুরু হয় ঝাঁড়ফুক। একপর্যায়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করে কবিরাজ। ওই সময় গৃহবধূর চিৎকারে স্বামী ও ভাসুর এগিয়ে আসলে পালিয়ে যায় কবিরাজ।

মহাদেবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, জিন তাড়ানোর নামে যে তাবিজগুলো কবিরাজ দিয়েছিল সেগুলো ইংরেজিতে লিখা হয়েছে। এটা একটা প্রতারণা। তবে ধর্ষণের অভিযোগে গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে কবিরাজ আজিজুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।