আল-আকসা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে ইসরায়েল : এরদোয়ান

 
 

আল-আকসা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে ইসরায়েল : এরদোয়ান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: : তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, মুসলমানদের কাছে থেকে জেরুজালেমের পবিত্র আল-আকসা মসজিদ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে ইসরায়েল। বুধবার আঙ্কারায় দেশটির ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট পার্টির (একেপি) এক বৈঠকে তিনি ওই মন্তব্য করেন।

বৈঠকে এরাদোয়ান বলেন, ‘পবিত্র মসজিদের ইবাদতকারীদেরকে সন্ত্রাসী হিসেবে মোকাবেলা করা মেনে নেয়ার মতো নয়।’

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘যারা ইসরায়েল সম্পর্কে অবগত আছেন, তারা জানেন আল-আকসা মসজিদে আরোপিত বিধি-নিষেধ নিরাপত্তাজনিত কারণে নয়। সন্ত্রাসবাদের আড়ালে ছদ্মবেশে মুসলিমদের কাছ থেকে আল-আকসা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে ইসরায়েল।’

সম্প্রতি আল-আকসা মসজিদে মুসলিমদের প্রবেশে বাধা দেয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান একেপির এই চেয়ারম্যান।

ইসলামি বিশ্বের প্রতি আহ্বান জানিয়ে এরদোয়ান বলেন, ‘আল-আকসা রক্ষায় মুসলমানদের সক্রিয় হতে হবে। তিনি বলেন, ইসরায়েলি সেনারা সাধারণ একটি ইস্যুকে ব্যবহার করে আল-আকসার বুক তাদের কমব্যাট বুটে দূষিত করছে এবং সেখানে অনায়াসেই রক্তপাত ঘটাচ্ছে। কারণ, (তারা এটি করতে সক্ষম), আমরা (মুসলিমরা) জেরুজালেমের দাবির বিষয়ে যথেষ্ট কাজ করছি না।’

‘এখান থেকে, আমি সব মুসলিমদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। যাদের সুযোগ আছে, তাদের জেরুজালেম সফর করা উচিত, আল-আকসা মসজিদ। চলুন, আমরা সবাই জেরুজালেম রক্ষা করি।’

এর আগে গত শনিবার জেরুজালেম সংকটে মুসলিমদের ওপর ইসরায়েলের অতিরিক্ত বলপ্রয়োগের নিন্দা জানান তিনি। জেরুজালেমের এই সংকট মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে হস্তক্ষেপের আহ্বান জানান এরদোয়ান।

উল্লেখ্য, আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি নতুন নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিরা গত এক সপ্তাহ ধরে বিক্ষোভ করে আসছেন। বিক্ষোভে রক্তাক্ত সহিংসতায় অন্তত ছয়জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স বলছে, পবিত্র আল-আকসা মসজিদের প্রবেশপথে মেটাল ডিটেক্টর বসানোর প্রতিবাদে শুক্রবার ফিলিস্তিনি নাগরিকদের বিক্ষোভে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলি, টিয়ার গ্যাস ও রাবার বুলেটে তিন ফিলিস্তিনি নিহত হয়। এর কয়েকঘণ্টা পরে ইসরায়েল অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইহুদি বসতিতে ছুরিকাঘাতে তিন ইসরায়েলি নিহত হয়েছে।

সূত্র : মিডল ইস্ট মনিটর।