আগামী ১৫ দিন পাকা আম না কেনার পরামর্শ ম্যাজিস্ট্রেটের

 
 

2321221

সিলেটপ্রেস ডেস্ক:: বাজারে অপরিপক্ক আম পাকিয়ে বিক্রি হচ্ছে। এ আম পাকানো হচ্ছে ক্যালসিয়াম কারবাইড ও ইথোফেন স্প্রে দিয়ে। এটি মানব দেহের জন্য ক্ষতিকারক। তাই আগামী ১০ থেকে ১৫ দিন আপনারা পাকা আম ক্রয় করবেন না। রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ফলের আড়তে যৌথ অভিযান শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান র‌্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। বৃহস্পতিবার যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব ও বিএসটিআই’র ভ্রাম্যমাণ আদালত।সারওয়ার আলম বলেন, আমের বাইরের অংশ দেখলে মনে হবে এগুলো পরিপক্ব আম। আসলে এটি ক্ষতিকর রাসায়নিক দ্রব্য দিয়ে পাকানো হয়েছে।তিনি বলেন, এসব আম খেলে ডাইরিয়াসহ বিভিন্ন ধরনের দীর্ঘ মেয়াদী অসুখের সম্ভাবনা রয়েছে।

ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার বলেন, অভিযানে এক হাজার মণ আম ধ্বংস ও ৪০ মণ খেজুর জব্দ করা হয়েছে।অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত ছয় প্রতিষ্ঠানের ৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে জেল-জরিমানা করেন।অভিযানে আশা বাণিজ্যালয়ের লুৎফর রহমান ও জাকির হোসেনকে এক বছর, মোস্তফা এন্টারপ্রাইজের মোস্তফা শেখকে ছয় মাস, সাতক্ষীরা বাণিজ্যালয়ের মো. ইয়াসিনকে ছয় মাস, এস আলম বাণিজ্যালয়ের মিঠুন সাহাকে দুই মাস, আতিউর ট্রেডার্সের রঞ্জিত রাজবংশীকে তিন মাস, বিসমিল্লাহ ট্রেডার্সের মো. শাহিদুল এবং নামহীন দুটি প্রতিষ্ঠানের মেহেদী হাসান ও রেজাউল নামে দুই জনকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেন আদালত।কৃষি বিভাগের ‘আম ক্যালেন্ডার’ অনুযায়ী সব ধরনের গুটি আম বাজারে আসবে ২০ মে থেকে। ২৫ মে গোপালভোগ, হিমসাগর ও ক্ষিরসাপাতি ২৮ মে বাজারে আসবে। ১ জুন আসবে লক্ষণভোগ, ৫ জুন ল্যাংড়া ও বোম্বায়, ১৫ জুন আমরূপালি, ফজলি ও সুরমা ফজলি বাজারে আসবে। আশ্বিনা আম বাজারে আসবে ১ জুলাই থেকে।