অপমানে নিজেকে সরিয়ে নিলেন রাহুল

 
 

676589

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: অনীল কুম্বলের পদত্যাগের পর অনেক জল ঘোলা করে রবি শাস্ত্রীকে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছিলো। সহকারী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছিলো ব্যাটিং কোচ হিসেবে রাহুল দ্রাবিড়কে আর বোলিং কোচ হিসেবে জহির খানকে।

কিন্তু রবি শাস্ত্রী এই দুইজনকে পেয়ে মোটেও তুষ্ট ছিলেন না। কোনো গোপনীয়তা না রেখেই তিনি রাহুল দ্রাবিড়ের বদলি হিসেবে চাইছিলেন শচীন টেন্ডুলকারকে। আর জহির খানের বদলে ভরত অরুণকেভ কিন্তু শুরুতেই এমন প্রস্তাব নাকচ করায় শচীনের দিকে মিডিয়ার তেমন কোনো আগ্রহ ছিলো না। মূলত দেখার বিষয় ছিলো রাহুল দ্রাবিড়ের প্রতিক্রিয়া।

বেলা শেষ না হতেই যাই ভাবা তাই হলো। মোটামুটি অপমানিত রাহুল নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দিলেন।

শনিবার কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেশন প্রধান বিনদ রায় সংবাদ মাধ্যমকে জানান,‘দ্রাবিড়ের চুক্তি সম্পর্কিত সব সমস্যাই মিটে গিয়েছিল। কিন্তু তিনি নিজেই জানিয়ে দিয়েছেন দলের সঙ্গে বিদেশ সফরে অংশ নেবেন না।’

দ্রাবিড়ের এমন সিদ্ধান্তে নতুন করে অস্বস্তিতে পড়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই।  বিনোদ রায় পিটিআইকে দেয়া ওই সাক্ষাৎকারে আরও বলেন,‘অনুর্ধ্ব -১৯ দলের জন্য দ্রাবিড় দুই বছরের পূর্ণাঙ্গ চুক্তিতে আছেন। এখন তিনি এছাড়া কিছুই ভাবছেন না।’

অনুর্ধ্ব-১৯ রাহুল দ্রাবিড়ের সরে যাওয়ার মূল কারণ নয় বলে মনে করেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, কোচ নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অপমানিত হওয়ার কারণেই নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন রাহুল।

দ্রাবিঢ় বর্তমানে ভারতের অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে। তিনি তার দেশের হয়ে ১৬৪টি টেস্ট ও ৩৪৪টি ওয়ানডে খেলেছিলেন।